পূবাইলে নুরুল ইসলাম মাস্টারের রাজনীতি ও শিক্ষকতা!

দৈনিক আজকের খবরদৈনিক আজকের খবর
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৫:৫৫ PM, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

স্টাফ রিপোর্টার: শিক্ষক হলো মানুষ গড়ার কারিগর।যে কোন শিক্ষক এর মূলনীতি গঠনমূলক শিক্ষার মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের জীবনমান উন্নয়ন করা এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে শক্তিশালী করা।কিন্তুু রাজনীতি ও শিক্ষকতা এক সাথে চালানো কতটা যুক্তিযুক্ত?

আমরা বলছি,গাজীপুর মহানগরীর ৪২ নং ওয়ার্ড বিন্দান উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক নুরুল ইসলাম মাস্টারের কথা।তিনি রাজনীতির পাশাপাশি চালিয়ে যাচ্ছেন তার শিক্ষা কার্যক্রম। একদিকে শিক্ষকতা অপর দিকে বিএনপি থেকে সরে এসে আওয়ামীলীগ রাজনীতিতে আশীন হয়ে শ্রম রাজনীতিতে বিরাজমান।এই দুইয়ের ধুম্রজালে প্রশ্নবিদ্ধ নুরুল ইসলাম মাস্টার।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষক বলেন,শিক্ষক হলো জাতির বিবেক তার কাজ শিক্ষকতার পাশাপাশি সমাজ ও দেশের সেবা করা।শ্রমিক রাজনীতি করবে তা আমার জানা নাই,তিনি শিক্ষক হয়ে কিভাবে শ্রমিকদের সাথে নিয়ে এক সাথে রাজনীতি করেন আমি বুঝি না।

সরেজমিনে এ বিষয়ে এক শিক্ষার্থীর অভিভাবকের সাথে কথা বললে তিনি জানান,আমরা জানি,নুরুল ইসলাম মাস্টার শিক্ষকতা করেন,তিনি যে রাজনীতি করেন,তা আমরা জানি না।আর রাজনীতি করলে তো ছেলেমেয়েদের একটু ক্ষতি হবেই।বিন্দান উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শফিকুল ইসলাম জানান,প্রাতিষ্ঠানিক ও রাজনৈতিক কারণে আমি এ বিষয়ে কিছু বলতে পারছি না।আমি শারিরীক ভাবে অসুস্থ।বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানান,উপযুক্ত প্রমাণপেলে আমাদের যা করণীয় তা করব।

দলীয় প্রশ্নের জবাবে বিএনপি এবং আওমীলীগের একাধিক নেতাকর্মী বলেন,নুরুল ইসলাম মাস্টার পূর্বে বিএনপি রাজনীতি করত বর্তমানে আওয়ামীলীগ রাজনীতির সাথে সক্রিয় এটিই সত্যি। মূলত নুরুল ইসলাম মাস্টার ছাত্রজীবনে টঙ্গী সরকারি কলেজে ছাত্রদলের সাথে রাজনীতিতে সম্পৃক্ত ছিলেন।সাবেক পূবাইল ইউনিয়ন ৪ নং ওয়ার্ড সভাপতি,সাধারণ সম্পাদক জানান,টঙ্গী কলেজে হায়দরাবাদ এর মজিবুর রহমানের সাথে ছাত্রদল করত।সাবেক পূবাইল ইউনিয়নের মুজিবুর যখন যুবদলের সভাপতি ছিলেন তখন নুরুল ইসলাম মাস্টার সাবেক ২ নং ওয়ার্ডের ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক আওয়ামীলীগ এর নেতা কর্মী জানান,নুরুল ইসলাম মাস্টার চারদলীয় জোট সরকার আমলে বিএনপি রাজনীতিতে সক্রিয়ছিল।আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসার পর পূবাইল কলেজ মাঠে তিনি বিএনপি হতে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।

এদিকে পূবাইল থানা তৃণমূল শ্রমিকলীগ নেতাকর্মীদের দাবি হলো,যুগের পর যুগ ধরে আমরা যারা শ্রমিকলীগ করে আসছি,তাঁদের যথাস্থানে মূল্যায়ন না করে কিছু স্বার্থান্বেষী লোক বিএনপি থেকে আসা ব্যাক্তিদের পূবাইল থানা শ্রমিক রাজনীতিতে বসানোর চেষ্টা চলছে।আমরা জাতীয় ও স্হানীয়ভাবে সিনিয়র জাতীয় শ্রমিক নেতাদের মাধ্যমে এর তীব্র নিন্দা জানাই।এমনটা ঘটলে আমরা শ্রমিকলীগের ত্যাগী নেতাকর্মীরা মানব না।

এ বিষয়ে নুরুল ইসলাম মাস্টারকে জিজ্ঞেস করলে তিনি,বলেন এগুলো মিথ্যা,আমি কোনদিনই বিএনপি রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলাম না যারা বলেছেন মিথ্যা বলেছেন। আমি ১৯৯৬ হতে আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত।

 191 total views,  2 views today

আপনার মতামত লিখুন :